সুরমা ইউনিয়নে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মহসিন মিয়া গুরুতর আহত


স্টাফ রিপোর্টার::
সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মহসিন মিয়া নামে এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাত ৯ টায় হুরুয়ারকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তি হুরুয়ারকান্দা গ্রামের আমিন মিয়ার ছেলে মহসিন মিয়া। এব্যাপারে সদর থানায় আহতের পিতা আমিন মিয়া বাদি হয়ে ১৮ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে মহসিন মিয়া গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট এমএ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। জানা যায়, হুরুয়ারকান্দা গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে মাসুক মিয়া সপ্তাহখানেক আগে মহসিন মিয়ার কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা ঋণ নেন। ঘটনার দিন পাওনা টাকা ফেরত চাইতে গেলে মহসিন মিয়াকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এক পর্যায়ে টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করে। পরে উপায়ন্তর না পেয়ে মহসিন মিয়া গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের কাছে বিচার প্রার্থী হন। এতেই আক্রোশান্বিত হয়ে উঠে মহসিন মিয়াসহ সংঘবদ্ধ একটি চক্র। এবং মহসিন মিয়াকে মারতে তারা ওৎ পেঁতে থাকে। এদিকে মহসিন মিয়া আব্দুজ জহুর সেতুর পশ্চিমপাড়স্থ বালু বিক্রি করে ৩ লক্ষ টাকা নিয়ে বাড়ির উদ্যোশ্যে রওয়ানা হন। ঘটনাস্থলে পৌঁছার পরই ইসমাইল আলীর ছেলে আবুল হোসেন হুকুম দিয়ে বলে হারামজাদাকে খুন করে বিচার প্রার্থী হওয়ার স্বাদ মিটিয়ে দাও। তার হুকুমে রমজান মিয়া, ফরহাদ মিয়া, মাসুক মিয়া, মজিবুর রহমান গংরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। হামলায় তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারাত্মক জখম হয়। এবং তার মাথায় প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ায় অপারেশন চলছে। তার অবস্থা আশংকাজনক। সদর থানার ওসি সহিদুর রহমান জানান, এব্যাপারে একটি লিখিত এজাহার পেয়েছি। এবং মামলাটি আমলে নিয়ে এফআইআর করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
ছিলেন।