দোয়ারায় জমি সংক্রান্ত জেড়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৬ জন আহত


দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি::
দোয়ারাবাজার উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৬ জন আহ হয়েছে। জানা যায় গত মঙ্গলবার দুপুরে খুরশেদ আলমের বানানো নতুন টিনসেট ঘরটি দেলোয়ার নগর গ্রামের মোঃ মশ্রব আলীর লোকজন ঘরটি ভেঙ্গ টিন বাঁশ,কাট সব কিছু লুট করে নিয়ে যাবার সময় দুই পক্ষের সংঘর্ষ বাঁধলে উভয় পক্ষের ৮ জন আহত হন। খুরশেদ আলম ভ‚ইয়ার পক্ষে আহত হলেন, খুরশেদ আলমের স্ত্রী ফুল নেহার বেগম (৫৫), মেয়ে শামছুন্নাহার(৩৫) শামছুুুল আলম(২৪) আশরাফুল আলম(২৭), দেলোয়ার নগর গ্রামের মশ্রব আলীর পক্ষের আহতরা হলেন মশ্রব আলীর পুত্র মামুন মিয়া (২২), শাহ আলমের পুত্র আলী আজগর শিপন (১২)। আহতদের দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আশ্রব আলী বাদি হয়ে দোয়ারাবাজার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। দেলোয়ার নগর গ্রামের আশ্রব বলেন,আমাদের জায়গায় হটাৎ করে খুরশেদ আলমের লোকজন নিয়া ঘর বানানোর সময় আমরা তাদের বাঁধা প্রধান করি, এর জন্য তার স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে বসাই মিলে আমাদের উপর লাটি সুটা নিয়া হামলা করে। সুড়িগাও গ্রামের খুরশেদ ভুইয়া বলেন, আমার দখলিয় জায়গায় আমি ঘর বানাইছিলাম আশ্রব আলীর লোকজন আমার ঘরের বাঁশ টিন কাট সহ ঘরের স¤পুর্ণ মালামাল লুট করে নিয়া গেছে। আশ্রব আলী আমার জায়গা জোড় করে দখল করার পায়তারা করছে। আশ্রব আলী আমার জায়গার উপর একটা জাল দলিল করে আমাকে অহেতুক হয়রানি করছে। গত ২০১৮ সালে দলিলটি সাবরেজিস্টার সাহেব তদন্ত করে জাল দলিল প্রমানিত হয়েছে। এর পরও আমাকে অহেতুক হয়রানি করছে। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে দোয়ারাবাজার থানার ওসি মোহাম্মদ নাজির আলম জানান, এবিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।