দোয়ারাবাজারে ৯ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ কাল, লড়াই হবে সেয়ানে সেয়ানে

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধিঃ মোঃ আলা উদ্দিন

সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার ৯ ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচনে একযোগে কাল বৃহ¯পতিবার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রচার প্রচারণার শেষ দিনে উৎসবমুখর পরিবেশ লক্ষ্য করা গেছে সবকটি ইউনিয়নে। উপজেলার ১নং বাংলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মূলত ত্রিমুখী লড়াই হবে। সাধারণ ভোটারদের আলোচনায় রয়েছেন, এম আবুল হোসেন ও বর্তমান চেয়ারম্যান জসিম মাস্টার। তাঁরা আ’লীগের প্রভাবশালী দুই বিদ্রোহী প্রার্থী। পাশাপাশি রয়েছেন আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. মানিক মিয়া। অপরিদকে ওই ইউনিয়নে ভোটের মাঠে লড়ছেন জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী আবু সালেহ, স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হাসনাত ও আ’লীগের আরেক বিদ্রোহী ইবরাহীম খলিল। ২নং নরসিংপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ত্রিমুখী লড়াই হবে। মূল প্রতিদ্ব›িদ্বতায় রয়েছেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সামছুল হক নমু, আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী, বর্তমান চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন আহমদ এবংআ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নুরুল আমিন ওই ইউনিয়নে ভোটের মাঠে রয়েছেন আ’লীগের দুই বিদ্রোহী ফজলুর রহমান ও হাজী স্বপন মিয়া। ৩নং দোয়ারাবাজার সদর ইউনিয়নে মূলত দ্বিমুখী লড়াই হবে। এবার আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল হামিদ এর সঙ্গে কঠিন লড়াইয়ে অবতীর্ণ হবেন বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব এমএ বারী। ওই ইউনিয়নে ভোটের মাঠে রয়েছেন আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুন মিয়া। তবে সদর ইউনিয়নে বিএনপির সমর্থিত দুই প্রার্থী থাকায় নানা কারণে সুবিধা জনক অবস্থানে রয়েছেন আ’লীগের একক প্রার্থী আবদুল হামিদ। এই ইউনিয়নে এবার সর্বস্তরের আ’লীগ ঐক্যবদ্ধ। এছাড়া বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও জামায়াতের উপজেলা পর্যায়ের বড়ো নেতারাও আবদুল হামিদ এর সঙ্গে ভোটের মাঠে থাকায় সঙ্গত কারণেই সুবিধাজনক অবস্থায় আছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল হামিদ। ৪নং মান্নারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মূলত চতুর্থ মুখী লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ইজ্জত আলী, আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী অসিত কুমার দাস, বর্তমান চেয়ারম্যান আবুহেনা আজিজ ও হাজী আবদুল খালিক। এই চারজনই ভোটের আলোচনায় রয়েছেন। তবে টেক্কা দিয়ে এবার চমক দেখাতে পারেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ইজ্জত আলী। ওই ইউনিয়নে অন্য স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন, জামাল উদ্দিন আহমদ, দিলীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, শাহাব উদ্দিন ৫নং পান্ডারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চতুরমুখী লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন ভোটাররা। আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল ওয়াহিদ, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ওলিউর রহমান, বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারুক আহমদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মইনুল হকের মধ্যে জমজমাট লড়াই হবে। ওই ইউনিয়নে ভোটের মাঠে রয়েছেন আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবীর, স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুর রহমান, মাস্টার আসকর আলী। ৬নং দোহালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ত্রিমুখী লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন ভোটাররা। ভোটের মাঠে তুমুল প্রতিদ্ব›িদ্বতায় রয়েছেন, আ’লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর মিয়া, শামীমুল ইসলাম ও আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী, বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার মিয়া আনু। ওই ইউনিয়নে ভোটের মাঠে রয়েছেন আবদুর রাজ্জাক। ৭নং ল²ীপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মূলত লড়াই হবে আ’লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থীর মধ্যে। বর্তমান চেয়ারম্যান আমীরুল হক ও জহিরুল ইসলাম এর মধ্যে কঠিন লড়াই হবে। ওই ইউনিয়নে প্রতিদ্ব›দ্বীতায় রয়েছেন আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল কাদির ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমান স্বপন। ৮নং বোগলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীগ ও বিএনপির সমর্থিত দুই প্রার্থীর মধ্যে কঠিন লড়াই হবে। ৯নং সুরমা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী এমএ হালিম বীরপ্রতীক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হারুন অর রশীদ এর মধ্যে জমজমাট লড়াই হবে। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, দোয়ারাবাজার উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ৮২টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে। এসব কেন্দ্রে ভোটার রয়েছেন মোট ১লাখ ৬৮ হাজার ৪৯৭ জন। এর মধ্যে মহিলা ভোটার সংখ্যা ৮৩হাজার ৫ শত ৫৬জন এবং পুরুষ ভোটার ৮৫ হাজার ৫ শত ৪০ জন। থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ৮২টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৫১টি ভোটকেন্দ্রে সহিংসতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ জন্য এই ১৮টি ভোট কেন্দ্রকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ও ৩৩ টি ভোট কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। এসব কেন্দ্রে নাশকতা, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি ও ভোট বাক্স ছিনতাইর আশংকা রয়েছে। তবে এসব কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তাব্যবস্থা। দোয়ারাবাজারে ৯ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ কাল, লড়াই হবে সেয়ানে সেয়ানে