রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেক হোসেন পীর


স্টাফ রিপোর্টার::
রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেক হোসেন পীর। সোমবার সকাল ১১ টার সময় বার্ধক্য জনিত কারনে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) তিনি। তার মৃত্যুতে সুনামগঞ্জ ৫ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মুহিবুর রহমান মানিক,বিরোধী দলীয় হুইপ ও সুনামগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্, সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মতিউর রহমান, সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নূরুল হুদা মুকুট, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, সাবেক পিপি ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ড.খায়রুল কবির রুমেন এডভোকেট,জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিস্টার এম.এনামুল কবির ইমন,যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান চৌধুরী শাহী, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সুনামগঞ্জ জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার হাজী নুরুল মোমেন, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আবু সুফিয়ান, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নোমান বখত পলিন, যুক্তরাজ্যস্থ প্রবাসী আওয়ামীলীগ নেতা ইমানুজ্জামান চৌধুরী মহী, সদর উপজেলা কমান্ড এর সাবেক কমান্ডার আব্দুল মজিদ,আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী জাহান, জেলা শাখার সভাপতি আল-হেলাল, সদর উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক মোস্তাক আহমদ রোমেলসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার গণ্যমান্য লোকজন গভীর শোক প্রকাশ ও মরহুমের শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। মরহুমের ভাতিজা সাংবাদিক আশিকুর রহমান পীর জানান, এশার নামাজের পর শহরের লক্ষণশ্রী ঈদগাহ ময়দানে নামাজে জানাযা শেষে আমার চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেক হোসেন পীর সাহেবকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। মৃত্যুকালে তিনি এক ছেলে,দুই মেয়ে,স্ত্রী ও আত্মীয় স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।