দক্ষিণ সুনামগঞ্জে দুটি সেতুর জন্য তিন উপজেলার মানুষের দুর্ভোগ


স্টাফ রিপোর্টার::
দিরাই-দক্ষিণ সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুরের সংযোগ স্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ দুটি সেতুর কাজ থমকে গেছে। এ নিয়ে তিন উপজেলার মানুষের মাঝে চলছে বিরূপ প্রতিক্রিয়া। বর্তমান সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান এমপির ঘোষণা অনুযায়ী দিরাই উপজেলার সিকন্দরপুর জামে মসজিদের সামন হতে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাইকাপন গ্রামের নদীপাড় দিয়ে একটি সেতু তারপর সড়ক পথ মুন্সী বাড়ির পাশ দিয়ে গ্রামের উত্তর-পূর্বদিকে জামখলা হতে চন্ড্রিডহর পারে জগন্নাথপুর উপজেলার তেলিকোনা অর্থাৎ জামখলা-তেলিকোনা সেতু চলতি বছরে শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নানান টালবাহানা ও রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে অবহেলিত জনপদের উন্নয়নমুলক স্বাপ্নিক কাজটি ভেস্তে যাচ্ছে। বারবার মাটি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পরে কর্তৃপক্ষের চুড়ান্ত সিদ্বান্ত হয় উক্ত স্থান দিয়ে দুটি সেতু নির্মাণের। দরগাপাশা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী পাইকাপন গ্রামের বড়বাড়ির তরুণ সমাজসেবক ও শিক্ষাবিদ মনির উদ্দিন পুত্র মাসুদুল হাছান দোলন বলেন-নেতৃত্বের দ্বন্দ্বে দিরাই- হুসেনপুর – কলকলি’র রাস্তা নির্মাণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। লক্ষাধিক মানুষের প্রাণের দাবি এভাবে ভেস্তে দেয়া যাবে না। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে নামতে হবে। তিনি আরও বলেন,’দেশে যখন ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডে চলছে তখন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন জনপদে সড়ক আর সেতু নির্মাণ প্রকল্পে ধীর গতি দেখা দেওয়ায় এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তাই তিন উপজেলার সর্বস্তরের জনগণ মিলে যেকোনো সময় আন্দোলনে নামতে পারে। তাই যতাযত কর্তৃপক্ষের উচিত তিন উপজেলার দীর্ঘদিনের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে দ্রƒত পদক্ষেপ গ্রহণ করা। তা না হলে সাধারণ মানুষের দাবি আদায়ের এই আন্দোলনকে দাবানো যাবে না।