ছাতকে দফায় দফায় সংঘর্ষ : গুলিবর্ষণ, আহত ৩০


ছাতক প্রতিনিধি::
ছাতকে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৩০ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত ১২জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার উপজেলার ভাতগাঁও ইউনিয়নের ঝিগলী খঞ্চনপুর গ্রামে আজিজুর রহমান ও মাসুক মেম্বার এবং সাবাজ মেম্বার ও হাসনাতের পক্ষদ্বয়ের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। জানা যায়, রোববার দুপুরে পূর্ববিরোধ ও গ্রাম্য আধিপত্যকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের লোকজনের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সাবাজ মেম্বারের বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় দু’পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের উপর বন্দুক দিয়েও গুলি চালানোর অভিযোগ উঠে। দফায় দফায় প্রায় ঘন্টাখানেক সংঘর্ষে চলে। খবর পেয়ে জাহিদপুর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সহায়তায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। ততক্ষণে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৩০ ব্যক্তি আহত হয়েছে। গুরুতর আহত আবদুর রহিম (৬০), তালেব মিয়া (৫২), তুহেল মিয় (৩৮), তাহের আহমদ (২২), ইমন আহমদ (১৯), আবদুস সামাদ (২৬), নয়ন আহমদ (২৩), মিলন (২০), সায়মন (২৬), আবদুল্লা আল মামুন (১৭),আজিজ (৪০), জামাল (৩৫)কে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৪জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে সূত্রে জানা গেছে। অন্যান্য আহতদের স্থানীয় ভাবে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপরে জাহিদপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পলাশ চন্দ্র দাশের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোনটি রিসিভ করেননি। তবে ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজিম উদ্দিন জানান, বর্তমানে সেখানের পরিস্থিতি শান্ত আছে। ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ। কোন পক্ষ এখনও লিখিত অভিযোগ দেয় নাই। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, ৪-৫ জন গুলিবিদ্ধ আছে।