ধর্মপাশায় এডিপির বরাদ্দে ঘাটলা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ


ধর্মপাশা প্রতিনিধি::
ধর্মপাশায় বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) বরাদ্দকৃত ৪৩ নম্বর প্রকল্পের কাজ অনুমোদিত তালিকা অনুযায়ী না করে সংশ্লিষ্ট পিআইসির সভাপতি তার ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের মোক্তারপুর গ্রামবাসীর পক্ষে সোমবার সকাল ১১টার দিকে নজরুল ইসলামসহ কয়েকজন এ ব্যাপারে ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০২০-২১ অর্থ বছরে এডিপি থেকে মোক্তারপুর গ্রামে একটি ঘাটলা নির্মাণের জন্য ২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। আর এ কাজের জন্য ওই ইউনিয়নের নারী ইউপি সদস্য সালমা আক্তারকে সভাপতি করে পিআইসি গঠন করা হয়। সালমা আক্তার পারিবারিক কাজে ব্যবহারের জন্য তার বাড়ির পেছনে এ প্রকল্প (ঘাটলা) বাস্তবায়ন করেন। তাই গ্রামবাসী স্থানীয় মসজিদ ও বিদ্যালয় সংলগ্ন স্থানে ওই ঘাটলাটি নির্মাণসহ প্রকল্প কমিটির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন। অভিযোগকারী নজরুল ইসলাম বলেন, ‘সালমা আক্তার তার বাড়ির পেছনে ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহারের জন্য যে ঘাটলাটি নির্মাণ করেছেন তা গ্রামবাসীর কোনো উপকারে আসবে না। জনস্বার্থে দেওয়া সরকারি বরাদ্দ ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করা আইন পরিপন্থি ও দূর্নীতির সামিল। এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দাবি জানাই। প্রকল্পের সভাপতি সালমা আক্তার বলেন, প্রকল্পের কাগজে সিদ্দিক মিয়ার (সালমা আক্তারের স্বামী) বাড়ির পেছনে নদীর পাড়ে ঘাটলা নির্মাণের কথা উল্লেখ ছিল। তাই বাড়ির পেছনে তা নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী আরিফ উল্লাহ খান বলেন, সালমার বাড়ির পেছনে নয় নদীর পাড়ে যেখানে ট্রলার থামে সেখানেই নির্ধারিত স্থানে ঘাটলা নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনতাসির হাসান বলেন, ‘এ ব্যাপারে সরেজমিন তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’