বালাকান্দা বাজার জলাবদ্ধতায়,জনর্দূভোগ চরমে


স্টাফ রিপোর্টার::
সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের বালাকান্দা বাজারের রাস্তায় পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকার কারণে সামান্য বৃষ্টি হলেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। হালকা বৃষ্টি হলে রাস্তায় পানি ও কাঁদা জমে পথচারীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগের পোহাতে হয়। আর একটু ভারি বর্ষণ হলে রাস্তার পাশের দোকানপাটগুলোতে পানি ঢুকে পড়ে। এতে প্রতিনিয়তই ক্ষতির মুখে পড়েছেন বাজারের ব্যবসায়ীরা। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, বালাকান্দা বাজারের রাস্তা, কাঁচাবাজার,মাছ বাজার,ও প্রধান রাস্তায় ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় পানি নিষ্কাশন সঠিক ভাবে হচ্ছে না। বিশেষ করে মাছ বাজার ও প্রথম গলি/প্রধান গলি থেকে বৃষ্টির পানি প্রবাহিত হওয়ার জন্য কোন ধরনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বাজারের মধ্যে পানি জমে থাকে। ফলে রাস্তায় পানি জমে সৃষ্টি হয়েছে কাঁদা ও জলাবদ্ধতা। এতে যানবাহন চলাচলসহ জনর্দূভোগ যেন চরম আকার ধারন করেছে। এ ব্যাপারে বালাকান্দা বাজারের ব্যবসায়ী মোঃ আলাউর রাহমান সাবেক ইউপি সদস্য বলেন, রাস্তায় পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় এ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। একটু বৃষ্টি হলেই বাজারের দোকানের মধ্যে পানি ঢুকে যায়। আমাদের বালাকান্দা বাজারে বৃষ্টির মৌসুমে ব্যবসা করতে হলে নানান ভোগান্তিতে পড়তে হয়। এগুলো দেখার যেন কেউ নেই।সরকার কিংবা জনপ্রতিনিদিরা উদ্যোগ নিলে এই জলাবদ্ধতা থেকে পরিত্রান পাওয়া সম্ভব। বালাকান্দা বাজারের সভাপতি মোঃ আবু হানিফা বলেন, রাস্তার পানি যেদিকে বের হবে সেই দিকের জমি অনেক উচু করে ফেলায় বাজারের পানি নিষ্কাশনের রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। তাই সঠিকভাবে পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না। বাজারে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন ও রাস্তা মাটি ভরাট করে উঁচু করলে এই সমস্যার সমাধান হবে। বালাকান্দা বাজারের সাধারণ সম্পাদক ডাঃসাইদুর রহমান সুহেল বলেন, এ রাস্তাগুলোর ও ড্রেন এর কাজ করানোর জন্য আমরা ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ বিভিন্নভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি। এ রাস্তা ও ড্রেন এর দ্রুত সংস্কারের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সুদৃষ্টি কামনা করছি।