লকডাউনের মধ্যেও যানজট


বিশেষ প্রতিনিধি::
করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে শহরে সড়কগুলোতে যানজট দেখা গেছে। শহর সকাল থেকেই ছিল সিএনজি, ইজিবাইক ও রিশকার দখলে। গত সোমবার যেখানে গাড়ী পাওয়া যেত না মঙ্গলবার শহরের যত্রতই মিলছে গাড়ী। শহরের চিত্র এমন যে, লকডাউন আছে এমন চিত্র বুঝাই যায় না। শহরের কালিবাড়ী মোড়, ট্রাফিক পয়েন্ট, বাসষ্ট্যান্ড ও থানার পাশের রাস্তায় ছিল সিএনজি, ইজিবাইকের ভীড়। লকডাউনের নির্দেশনা অমান্য করে এভাবেই চলছে ছোট ছোট পরিবহনগুলো। প্রশাসনের নজরদারী ছিল ঢিলেঢালা। রাস্তাঘাটে চলাচলে মানুষের মুখে মাস্ক নেই। অনেকের থুতনির নীচে মাস্ক নিয়ে দিব্যি ঘুরছেন। পুলিশ দেখলেই মুখে নেন মাস্ক। মোটেও বাড়ছে না সচেতনতা। সচেতনতা বাড়াতে সদর পুলিশের ওসি নেতৃত্বে পশ্চিমবাজার এলাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় নিজ হাতে মাস্ক পড়িয়ে দিচ্ছেন। এবং মাইকিং করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানাচ্ছেন। এদিকে মাস্ক ও দোকানপাঠ খোলা থাকায় বিকেলে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ও র‌্যাবের সহযোগীতায় মাঠে নামে মোবাইল কোর্ট। এসময় অনেক দোকানীকে অর্থদন্ড ও পথচারীদের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করতে দেখা গেছে। মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহন নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হলেও বাহনটিতে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে। জানতে চাইলে এক চালক বলেন, সব কিছু চলছে। দোকান পাট খোলা। তাহলে আমরা যাত্রী পরিবহন করলে সমস্যা কোথায়? সিএনজির চালক জমির আলী বলেন,গত করোনার সময় লকডাউনে পরিবার নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিন যাপন করেছি। যার ঘরে ভাত নেই সে বুঝে অভাব কি জিনিস। তাই এবার লকডাউনে গাড়ী নিয়ে বের হতেই হলো। কর্ন সরকার বলেন, আজ যেখানে ইচ্ছা সেখানেই যেতে মিলছে গাড়ী। শহরে লকডাউন আছে বলে মনেই হয় না।