জগন্নাথপুর জনতার মুখোমুখি চার মেয়র প্রার্থী দুর্নীতিমুক্ত পৌরসভা গঠনের অঙ্গীকার


জুয়েল আহমদ::
নির্বাচিত হলে পৌরসভাকে দুর্নীতিমুক্ত, কার্যকর ও জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন জগন্নাথপুর পৌরসভায় উপ-নিবার্চনে প্রতিদ্ব›িদ্বকারি চার মেয়র প্রার্থী। গতকাল সোমবার দুপুরে জগন্নাথপুর পৌর শহরের আব্দুস সামাদ আজাদ অডিটরিয়ামে ব্রেকিংস টুয়েন্টিফোর ডটটম নামের একটি অনলাইন পোর্টালের আয়োজনের জনতার মুখামুখি অনুষ্ঠানে এমন আশা ব্যক্ত করেন প্রার্থীরা। অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া চার প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীয় প্রার্থী জগন্নাথপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মিজানুর রশিদ ভূঁইয়া (নৌকা), বিএনপির প্রার্থী উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রাজু আহমদ (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী প্রয়াত মেয়র আব্দুল মনাফের ছেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবুল হোসেন সেলিম (জগ) ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আবিবুল বারী আয়হান (টেলিফোন)। ব্রেকিংস টুয়েন্টিফোর ডটকমের নির্বাহী সম্পাদক এনামুল হক সাজনুর এর সভাপতিত্বে ও উপদেষ্টা সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক তাজউদ্দিন আহমদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মেয়র প্রার্থীগণ উপস্থিত ভোটারদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন এবং উন্নত পৌরসভা গঠনের অঙ্গীকার করেন। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মিজানুর রশিদ ভূঁইয়া বলেন, জগন্নাথপুর পৌরবাসী আমাকে নির্বাচিত করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে একটি আধুনিক পৌরসভা রূপান্তরিত করে ড্রেনেজ, সড়ক বাতি, রাস্তা-ঘাটসহ পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করব। বিএনপির প্রার্থী রাজু আহমেদ বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমি নির্বাচিত হব। যদিও নির্বাচিত মেয়রের দায়িত্বকাল খুবই স্বল্প। তবুও পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে সর্বাত্বক প্রচেষ্টা চালাবো। স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হোসেন সেলিম বলেন, বাবার অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ সমাধানের লক্ষ্যে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। সম্মানিত ভোটাররা আমাকে নির্বাচিত করলে আধুনিক পৌরসভার গঠনে কাজ করব। স্বতন্ত্র প্রার্থী আবিবুল বারী আয়হান বলেন, নির্বাচিত হলে মাদক ও দুর্নীতিমুক্ত জগন্নাথপুর পৌরসভা গঠনের লক্ষ্যে কাজ করব। এছাড়া নাগরিকদে বিনোদনের জন্য পাক নির্মাণের চেষ্ঠা করব। অনুষ্ঠানে মেয়র প্রার্থীদের প্রশ্ন করেন, পৌর নাগরিক মিন্টু রঞ্জন ধর, নুরুল হক, আছকির আলী, রুহুল আমিন, জালাল আহমদ, জাহাঙ্গীর আলম, রাজিব চৌধুরী বাবু, কবির মিয়া, জিয়াউল হক জিয়া, সৈয়দ তুরন মিয়া প্রমুখ। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ১১ জানুয়ারী জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুল মনাফের মৃত্যুতে মেয়র পদটি শুন্য ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন ২৯ মার্চ উপ নির্বাচনের ঘোষনা দেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে ওই নির্বাচন ২০ মার্চ স্থগিত করা হয় গত ২১ সেপ্টেম্বর ফের নির্বাচন কমিশন স্থগিতকৃত পৌরসভার উপ-নির্বাচনের ১০ অক্টোবর ভোট গ্রহণের ঘোষনা দেন।