ছাতকে হত্যা মামলার আসামীসহ আন্তঃজেলা ডাকাত গ্রেফতার


স্টাফ রিপোর্টার::
ছাতকে হত্যা মামলার আসামী সহ আন্তঃজেলা ডাকাত গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। গত শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এসআই হাবিবুর রহমান পিপিএম ও সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান পরিচালনা করে উপজেলার নোয়ারাই কবরস্থান এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো, উপজেলার নোয়ারাই ফকিরটিলা গ্রামের মৃত. চান মিয়ার ছেলে ডাকাত রুয়েল হোসেন বুশ (৩০) ও নোয়ারাই গ্রামের বিক্রম আলী ছেলে জাম্বির আলী জম্বির (৩৫)। স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ডাকাত রুয়েল হোসেন বুশ ও তার সহযোগী ১০-১২ জন গত ২৯ জুন ২০২০ ইং তারিখে দিবাগত রাত অনুমান ২ টার দিকে ছাতক রেলওয়ের বিআর গোডাউন এর নিরাপত্তা প্রহরী ফখরুল আলমকে হত্যা করে রেলওয়ের গোডাউন ডাকাতি করে লৌহ জাতীয় মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। উক্ত ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় মামলা হয়। ক্লু-লেছ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হলেন ছাতক থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান পিপিএম। চাঞ্চল্যকর ক্লু-লেছ মামলায় দ্রুত সময়ের মধ্যে মুল রহস্য উদঘাটন করে ঘটনায় জড়িত আসামী ৮জন ডাকাতকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় থানা পুলিশ।গ্রেফতারকৃত ৭ জন ডাকাত বিজ্ঞ আদালতে ফৌঃকাঃবিঃ ১৬৪ ধারায় সেচ্ছায় স্বীকারোক্তি প্রদান করে। ৭ জন ডাকাতের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ছাতক থানার সেকেন্ড অফিসার মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান পিপিএম এর নেতৃত্বে, এএসআই সুমন চন্দ্র গোপ,এএসআই জয়নাল আবেদীন সংঙ্গীয় ফোর্স অভিযান পরিচালনা করে হত্যাসহ ডাকাতির ঘটনায় জড়িত আন্তঃজেলা ডাকাত রুয়েল হোসেন বুশকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত অপর ডাকাত জাম্বির আলী জম্বির তার অন্যান্য সহযোগীদের নিয়ে গত ১০ জানুয়ারী ২০২১ ইং তারিখে দিবাগত রাত উপজেলার পূর্ব নোয়ারাই গ্রামের প্রবাসী মকবুল হোসেন এর বাড়ীতে কৌশলে গোপনে ঘরে প্রবেশ করে খাবারে নেশাজাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে অজ্ঞান করে টাকা, স্বর্নালংকার সহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ বিষয়ে ছাতক থানার ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।