বিশ্বম্ভরপুরে পলাশ উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদে ইউএনও বরাবর অভিযোগ


স্টাফ রিপোর্টার::
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার পলাশ উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠের সীমানা নির্ধারনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। ৫ জানুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাদি উর রহমান জাদিদ এর নিকট পলাশগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল আহাদের ছেলে দ্বীন ইসলাম, তাইজুল ইসলামের ছেলে পারভেজ, মৃত উসমান আলীর ছেলে মো:আবুল কালাম, কুটিপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে বিল্লাল হোসেন, রাজঘাট গ্রামের কালাচান মিয়ার ছেলে দিন ইসলামসহ অর্ধশতাধিক স্থানীয় এলাকাবাসী ও পলাশ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অবিভাবকদের স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ পত্রটি দেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় পলাশ বাজারের সংলগ্ন হওয়ায় কিছু সংখ্যক অসাধু ব্যক্তিরা অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে রড সিমেন্টসহ বিভিন্নভাবে স্থানীয় দোকানপাঠ করে পলাশ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের বেশিরভাগ জায়গায় দখল কওে সুবিধা ভোগকরে আসছে। যার ফলে খেলাধুলা সহ বিভিন্নভাবে ছাত্রছাত্রীদের মারাত্মক প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হচ্ছে। শুধু তাই নয়! স্কুল মাঠের উপর বিভিন্ন পণ্যের দোকান বাসিয়ে দোকানদারি করার কারণে ছাত্রছাত্রীরা স্কুলে যাওয়া আসায় মারাত্মকভাবে বিঘœ ঘটছে। অনেক সময় বখাটেদের কর্তৃক স্কুল ছাত্রীরা উতক্তসহ হচ্ছে ইভটিজিং এর শিকারও। তাই এলাকাবাসীর আকুল আবেদন, খেলার মাঠে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের অবাধ খেলাধুলা ও বিচরণসহ ছাত্রছাত্রীরা স্কুলে অবাধে যাওয়া আসার স্বার্থে দ্রুত পলাশ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের সীমানা সঠিকভাবে পরিমাপের মাধ্যমে নির্ধারন করে মাঠ দখল করা সকল অবৈধ স্থাপনসহ মাঠের মধ্যে বসানো সকল প্রকার দোকান পাঠ উচ্ছেদের দাবি জানান। অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাদি উর রহমান জাদিদ বলেন, আমি অভিযোগ এখনো পাইনি। আমি অভিযোগটি দেখে নাই। যদি এরকম কেউ করে থাকে তাহলে তদনÍপূর্ব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।