ধর্ষণ-অপহরণ মামলায় ৭ জনের সাজা


স্টাফ রিপোর্টার::
তিনটি পৃথক ধর্ষণ মামলায় ৩ জন আসামিকে যাবৎজ্জীবন কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা দিয়েছে বিজ্ঞ আদালত। অপরদিকে আরও একটি অপহরণ মামলার চারজন আসামিকে ১৪ বছরের কারাদন্ড ৫০ হাজার টাকা জরিমানার রায় দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক মোঃ জাকির হোসেন। সোমবার বেলা সাড়ে তিন টায় আদালতে আসামীদের উপস্থিতিতে তিনি এ রায় ঘোষণা করেন। যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন দিরাই উপজেলার জগদল গ্রামের আব্দুল খালিকের পুত্র আব্দুল বাতির (বাতেন) ২৮, ছাতক উপজেলার গনক্ষাই গ্রামের মৃত কানু বিশ্বাসের পুত্র কাঞ্চন বিশ্বাস (৩৫) জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীধরপাশা গ্রামের মৃত মোক্তার আলীর পুত্র সুমন মিয়া (২২)। দন্ডপ্রপ্তদের ১ লাখ টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করেন আদালত। এছাড়া একটি অপহরণ মামলায় ছাতক উপজেলার আন্দাইরগাঁও গ্রামের মৃত সুন্দন আলীর পুত্র জালাল উদ্দিন (২২) ও হেলাল মিয়া এবং আবু রায়হানের পুত্র সাজল মিয়া (২৪) ও সাইফুর রহমানের পুত্র অজুদ মিয়া ২৩। তাদের প্রত্যেককে ১৪ বছর ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন বিচারক। মামলায় বাদী পক্ষের আইনজীবী পিপি নান্টু রায় বলেন আদালতের রায়ে আমরা ন্যায় বিচার পেয়েছি। আসামী পক্ষের আইনজীবী রুবেল আহমদ বলেন, আমরা রায়ে সন্তুষ্ট নয়। আসামীদের খালাস চেয়ে উচ্চ আদালতে আপীল করব। উল্লেখ্য, গত ১৫/৩/২০০৭ইং তারিখে দিরাই থানার জগদল গ্রামের ভিকটিমকে বাতেন নামের এক যুবক ঘুমন্ত অবস্থায় জোরপুর্বক ধর্ষণ করে। ভিকটিম এক পর্যায়ে গর্ভধারণ করলে থানায় গিয়ে আসামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ছাতক উপজেলার ভিকটিমকে গত ১৬/৮/২০১৪ইং তারিখে পেয়ারা খাওয়ার লোভ দেখিয়ে বাবুল পাল নামে এক ব্যক্তি শয়ন কক্ষে নিয়ে জোর পুর্বক ধর্ষণ করে। সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা খাজাকালু গ্রামের ১৪ বছরের কিশোরীকে সুমন মিয়া নামে এক যুবক ফোরস্ট্রোক করে তুলে নিয়ে যায় জগন্নাথপুর এলাকায়। সেখানে একটি আবাসিক হোটেলে রেখে কিশোরীকে তিনবার ধর্ষণ করে। এদিকে ১২/০৪/২০১২ইং তারিখে ছাতক উপজেলার বড় বিহাই গ্রামের ১৯ বছরের এক তরুণী সিলেট থেকে ছাতক কেনাকাটা শেষে সিএনজি যোগে বাড়ির উদ্যোশে রওয়ানা হয়। গাড়িটি জাউয়া এলাকায় পৌঁছলে আসামীগণ জোরপুর্বক ছিনিয়ে তাদের সিএনজিতে উঠিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে দীর্ঘ তদন্ত শেষে ঐসব মামলার পুলিশ চার্জশীট দাখিল করে। এবং আদালত স্বাক্ষী প্রমাণাদি বিশ্লেষন করে ধর্ষক ৩ জনকে যাবৎজ্জীবন ও অপহরণকারী ৪ জনকে ১৪ বছর করে সাজা প্রদান করেন।